E-Porcha খতিয়ান অনুসন্ধান বা অনলাইনে পর্চা দেখা

E-Porcha খতিয়ান অনুসন্ধান: অনলাইন ভূমি সেবা ই-পর্চা (E-Porcha) খতিয়ান অনুসন্ধান সম্পর্কে আজ আমরা আপনাকে কিছু গুরুত্বপূর্ন তথ্য প্রদান করবো। আশা করি আপনি এই বিষয় গুলো জানতে পারলে ভূমি বিষয়ে বা অইলাইনে ইপর্চা খতিয়ান অনুসন্ধানসহ ভূমি সেবা গ্রহণ করতে সহায়ক ভূমিকা হিসেবে কাজ করবে।

E-Porcha খতিয়ান অনুসন্ধান

ভূমি মন্ত্রণালয় গনপ্রজাতন্ত্রী বাংদেশ সরকার  ‍ভূমি সেবাকে আরো এগিয়ে নিতে ই-নামজারি, ভূমি উন্নয়ন কর, নামজারি খতিয়ান,ডিজিটাল ল্যান্ড রেকর্ড,আর এস খতিয়ান, রেন্ট সার্টিফিকেট মামলা,বাজেট ব্যাবস্থাপনা,অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা,উত্তরাধিকার অ্যাপ, ই-বুক অ্যাপ সহ অনলাইয়ে পর্চা বা খতিয়ান অনুসন্ধানের জন্য নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

যদি এই লেখাটি আপনাদের কাজে আসে অবশ্যই আপনাদের বন্ধুদের শেয়ার করে বিষয় গুলো জানিয়ে দিবে। আর কথা না বাড়িয়ে এবার শুরু করা যাক-

E-Porcha খতিয়ান অনুসন্ধান বা অনলাইনে পর্চা দেখার জন্য আপনাকে নিচের ধাপ গুলো ফলো করতে হবে

ই-পর্চা বা খতিয়ান অনুসন্ধানের মাধ্যমে আপনি নিজেই দেখুন আপনার জমির প্রয়োজনীয় কাগজাদি। খতিয়ান অনুসন্ধান এর মাধ্যমে আপনার জমির পর্চা আপনি নিজেই দেখতে পারেন খুব সহজে। আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোনের মাধ্যমেই আপনি গ্রহন করতে পারেন এই অনলাইন ই-পর্চা আপনার খতিয়ানের কপি।

খতিয়ান অনুসন্ধানের জন্য প্রথমে আপনার মোবাইলে বা আপনার কম্পিউটারে প্রথমে একটি ব্রাউজার অপেন করত হবে। অনলাইনে পর্চা দেখতে এখানে ক্লিক করুন www.land.gov.bd অতপর নাগরিক কর্নারে ক্লিক করে খতিয়ান অনুসন্ধান করুন। খতিয়ান অনুসন্ধানে পাশে থাকা মানচিত্র বা ম্যাপ থেকে আপনার জেলা নির্বাচন করুন আপনার স্বীয় জেলায় ক্লিক করুন।

খতিয়ান অনুসন্ধানের জন্য আপনি কোন খতিয়ান অনুসন্ধান করছেন, আর.এস পর্চা, এস.এ, বি.এস কোন পর্চা খুঁজতে চান সেটা সিলেক্ট করুন। এবার উপজেলা ও মৌজার নাম বা মৌজার জে.এল নাম্বার সিলেক্ট করে খতিয়ান নাম্বর অথাব অত্র খতিয়ানের দাগ নাম্বার লিখুন। যদি খতিয়ানের দাগ বা খতিয়ান নাম্বার জানা না থাকে তবে উক্ত খতিয়ানের মালিকের নাম অথাবা মালিকের পিতার নাম লিখুন।

অবশ্যই খতিয়ানের মালিক বা পিতার নাম সঠিক বানানে লিখুন। খতিয়ান অনুসন্ধানে সব শেষে নিচের দেওয়া ক্যাপচা কোড লিখুন এবার অনুসন্ধান করুন। পরবর্তী ধাপে আপার এন.আই.ডি নাম্বার কার্ডে থাকা জন্ম তারিখ তারপর উক্ত কার্ড দ্ধারা রেজিষ্টেশন করা মোবাইল নাম্বার দিয়ে যাচাইয়ে ক্লিক করুন । এবার খতিয়ান অনুসন্ধানে নিচের যোগফল লিখুন।

পর্চা কি ? ই-পর্চা বলতে কি বোঝায় পর্চার প্রয়োজনীয়তা কেমন

পর্চা বা খতিয়ান হলো জমির মালিকের মালিকানা প্রমাণের একটি মাধ্যম। ভূমি ক্রয়ের পরে রেজেষ্টারি কার্যক্রম শেষে নামজারির মাধ্যমে যে জমির মালিকের নামে যে খতিয়ানের কপি প্রধান করা হয় সেটা কে পর্চা বা খতিয়ানের কপি বলা হয়।

জমির মালিক বের করবো কি ভাবে ?

জমির মালিক জানতে হলে বা জমির মালিক বের করতে হলে ই-পর্চা ওয়েব সাইটে বা খতিয়ান অনুসন্ধান সার্চ করে আপনি খুব সহজেই জমির মালিক বের করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই কিছু বিষয় আপনার জানা থাকতে হবে। যেমন খতিয়ান অনুসন্ধানে গিয়ে নির্দিষ্ট জায়গায় উপজেলা জেলা এবং মৌজার নাম লিখতে হবে। তার পরে রেকর্ডিও মালিকের সঠিক নাম অথবা রেকডিও মালিকের পিতার সঠিক নাম, এগুলো দিয়ে সার্চ করলে আপনি ঐ নামে কতো গুলো খতিয়ান আছে পেয়ে যাবেন। আবার জমির দাগ অথবা খতিয়ান লিখে সার্চ করে শুধুমাত্র ঐ খতিয়ান বা দাগের মালিকের নাম দেখাবে।

এখন ঘরে বসেই আপনি জমির পর্চার সার্টিফাইড কপি বা জমির যে কোনো সার্টিফাইড কপি পেয়ে যান।
এখন ঘরে বসেই আপনি জমির পর্চার সার্টিফাইড কপি বা জমির যে কোনো সার্টিফাইড কপি পেতে পারেন। আপনি আপনার কাজের চাপে কিংবা অফিসের কাজের চাপে  ‍ভূমি সেবার জন্য ভূমি অফিসে যে পারছেন না। কোনো অসুবিধা নেই খতিয়ান অনুসন্ধানে ই-পর্চা ওয়েব সাইটে গিয়ে আবেদন করে আপনি ঘরে বসেই আপনার সার্টিফাইড কপি পেতে পারেন। আপনি শুধু ডাক যোগে খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পেতে চান লিখে আবেদন করুন। জরুরী বিত্তিতে পেতে আবেদনের সময় জরুরী অপশনে ঠিক চিহ্ন দিয়ে দিন।

ভূমি বিষয়ে যে কোনো সেবা নিন আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে

গ্রামের দেওয়ানি কিংবা মাতব্বরের কাছে কিংবা পরিচিত সার্ভেয়ারের কাছে কিংবা মুহরির কাছে থেকে সঠিক পরামর্শ না পেলে হতাশ হবার কোনো কারণ নেই । আপনি ভূমির হটলাইন সেবা নিতে পারেন।

ভূমি সেবায় হটলাইন নাম্বারে কল করে ভূমি সংক্রান্ত যে কোনো পরামর্শ আপনি আপনার ঘরে বসেই- ১৬১২২ নাম্বারে কথা বলে জানতে পারেন। সোর্স

Show More

Related Articles

2 Comments

  1. ভাই আপনার পোষ্টটা আমার কাজে আসছে ভাই অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
?