উপবৃত্তি আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম

উপবৃত্তি আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম ২০২৪

দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য উপবৃত্তির আবেদন (স্কুল-কলেজ) প্রকাশিত হয়েছে। আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে জানতে পারবেন উপবৃত্তি আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম ২০২৪, উপবৃত্তির জন্য আবেদন কীভাবে করতে হয়, আবেদন করতে কি কি ডকুমেন্টস লাগবে এবং সময়সীমা সম্পর্কে। এই উপবৃত্তির জজন্য আবেদন করতে পারবেন ষষ্ঠ থেকে একাদশ শ্রেণীর দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীরা। অনলাইনে উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রি চলবে ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৯ মার্চ ২০২৪ খ্রি. তারিখ পর্যন্ত।

উপবৃত্তি প্রদানের উদ্দেশ্য

বাংলাদেশে অর্থের অভাবে শিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে উপবৃত্তি প্রদানের জন্য ২০ এপ্রিল, ২০১০ সাল থেকে জাতীয় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়কে একটি লিখিত নির্দেশনা প্রদান করেন। মূলত বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা এবং শিক্ষার্থীদের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য উপবৃত্তি প্রদান করা হয়। উপবৃত্তি প্রদানের মৌলিক উদ্দেশ্যগুলো হলো:

  • ছাত্র/ ছাত্রীদের ভর্তির হার বৃদ্ধি।
  • ছোট পরিবার গঠনে উৎসাহ প্রদান এবং প্রজনন হার নিয়ন্ত্রণ।
  • বাংলাদেশের জনগণদের চাকুরির সুযোগ ও উপার্জন ক্ষমতা বৃদ্ধি।
  • দারিদ্রতা বিমোচন ও জেন্ডার সমতা অর্জন।
  • সামগ্রিকভাবে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নয়ন।

স্কুল-কলেজ অনলাইন উপবৃত্তি আবেদন ফরম পূরণ নিয়ম ২০২৩

প্রতিবছরের ন্যায় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হয়। যেকোন শিক্ষা বোর্ড (মাদ্রাসা, কারিগরি উন্মুক্ত বোর্ড) এর শিক্ষার্থীরা আবেদন করার সুযোগ রয়েছে এতে। তারই ধারাবাহিকতায় ২০২৩ সালের সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচির আওতায় স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ষষ্ঠ ও একাদশ শ্রেণির উপবৃত্তি যোগ্য শিক্ষার্থীবৃন্দের নিকট হতে উপবৃত্তির জন্য আবেদন আহবান করছে মাউশি।

HSP-MIS ওয়েবসাইটে উপবৃত্তি আবেদনের তথ্য এন্টির তারিখ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল-কলেজে) অনলাাইনে উপবৃত্তির অনলাইন আবেদন শুরু হবে ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ এবং ১৯ মার্চ পর্যন্ত উপজেলায় প্রেরণ করতে পারবেন। ১৯ মার্চ ২০২৩ খ্রি. রাত ১২টার পর শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রি সফটওয়্যারের নির্ধারিত অপশন ব্যবহার করে উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসার নিকট প্রেরণ করতে হবে। নির্ধারিত সময়ের পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে এই অপশন বন্ধ হয়ে যাবে।

২২ মার্চ ২০২৩ খ্রি. তারিখে উপজেলা/থানা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নির্ধারিত অপশন ব্যবহার করে HSP-PMEAT তে প্রেরণ করবেন।

2024 সালের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রিতে যে সব তথ্য প্রয়োজন হবে

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টে আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী প্রদান করে আবেদন করতে হবে। যে সকল কাগজপত্র / তথ্য দরকার হবে তা নিম্নরূপ:

  • শিক্ষার্থীর ছবি এবং স্বাক্ষর
  • ১৭ ডিজিটের অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ
  • শিক্ষাগত তথ্যাবলী
  • অভিভাবকের জাতীয় পরিচয় পত্র
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুপারিশ পত্র ( প্রধান শিক্ষক কিংবা প্রিন্সিপালের হতে হবে )
  • অভিভাবকের কর্মরত প্রতিষ্ঠানের প্রত্যয়ন পত্র ( শুধুমাত্র তৃতীয় এবং চতুর্থ শ্রেণীর কর্মকর্তাদের জন্য )

উপবৃত্তি আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম ২০২৪

  • প্রথমে eservice.pmeat.gov.bd এই লিংকে ক্লিক করুন
  • যদি পূর্বে একাউন্ট করা থাকে তাহলে শুধুমাত্র লগইন করে নিন। একাউন্ট করা না থাকে, প্রথমে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  • এরপর মোবাইল ভেরিফিকেশন করতে হবে। মোবাইল ভেরিফিকেশন হয়ে গেলে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে।
  • এবার লগইন করে নিন
  • লগইন করার পর একটি আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। সেখানে শিক্ষার্থীর সকল তথ্য পূরণ করে সাবমিট করতে হবে।
আরো পড়ুন: বয়স্ক ভাতা অনলাইন আবেদন করার নিয়ম ২০২৩

আবেদন করার পর ড্যাশবোর্ড আপনার সামনে আসবে। আবেদনের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে আপনাকে ড্যাশবোর্ড দেখতে হবে। এখান থেকে আবেদনের একটি কপি প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে। খেয়াল রাখা জরুরী, উপবৃত্তির আবেদন যে মোবাইল নাম্বারটি ব্যবহার করবেন সেটিতে যেন মোবাইল ব্যাংকিং যেন চালু থাকে অর্থাৎ নগদ, বিকাশ ও রকেট ইত্যাদি।

আবেদন ফরম পূরণ করার নির্দেশনাবলি

একজন শিক্ষার্থী শুধুমাত্র একটি আবেদন করতে পারবেন এবং আবেদনে একটি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করা যাবে।

অভিভাবক হিসেবে দাদা, নানা, ভাই-বোন এদের কাউকে দেওয়া যাবে না। তবে যদি পিতা-মাতা জীবিত না থাকেন তাহলে তাদের অবর্তমানে অভিভাবক হিসাবে তারা বিবেচিত হবেন।

অভিভাবক হিসাবে যাকে নির্বাচন করবেন, তার জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য এন্ট্রি দিতে হবে। কোন ভুল তথ্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যথায় আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

আরো পড়ুন: প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০২৩

উপবৃত্তি পাওয়ার সময়সীমা

যে শিক্ষার্থী উপবৃত্তির যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন তাকে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। উপবৃত্তির জন্য নির্বাচিত প্রার্থী আবেদনের ৪-৬ মাসের মধ্যে বৃত্তির প্রাপ্ত টাকা প্রেরণ করা হবে। এছাড়াও তারা যে প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত রয়েছেন তাদের কোন টিউশন ফি প্রদান করতে হবে না।

আমরা এই আর্টিকেলটি পড়ে জানতে পেরেছি কিভাবে আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম ২০২৩ – উপবৃত্তির জন্য আবেদন করা যায় তা সম্পর্কে। আপনি আবেদনের যোগ্য হলে অবশ্যই উপবৃত্তির আবেদন করবেন এবং প্রতিবেশি শিক্ষার্থী আর্থিকভাবে অসচ্ছল হলে তাদেরকেও উপবৃত্তির জন্য আবেদন করার পরামর্শ দিবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top