সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২১

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২২ | সেহরি-ইফতার

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি : বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর দেয়া তথ্যানুযায়ী ঢাকা সহ ৬৪ জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২২। পবিত্র রমযান হল ইসলামিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ৯ম মাস। এটি সংযম বা রমজানের মাস।
রমজান মাসে সমগ্র পৃথিবীর মুসলিমগণ রোজা রাখেন।

ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে ৩য় তম হচ্ছে এই রমজান মাসের রোজা পালন করা। রমজান মাসের শেষদিকে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে অর্থাৎ শাওয়াল মাসের ১ তারিখ মুসলমানগণ ঈদুল-ফিতর পালন করে থাকেন। এখানে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকার জন্য সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী (হিজরী ১৪৪৩, ইংরেজি ২০২২)

ঢাকা জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২২

রহমতের ১০ দিন
রমজান  ইংরেজি তারিখ বার  সাহরির শেষ সময়  ইফতারের সময়
০৩ এপ্রিল রবি ৪:২৭মি. ৬:১৯মি.
০৪ এপ্রিল সোম ৪:২৬মি. ৬:১৯মি.
০৫ এপ্রিল মঙ্গল ৪:২৪মি. ৬:২০মি.
০৬ এপ্রিল বুধ ৪:২৪মি. ৬:২০মি.
০৭ এপ্রিল বৃহস্পতি ৪:২৩মি. ৬:২১মি.
০৮ এপ্রিল শুক্র ৪:২২মি. ৬:২১মি.
০৯ এপ্রিল শনি ৪:২১মি. ৬:২১মি.
১০ এপ্রিল রবি ৪:২০মি. ৬:২২মি.
১১ এপ্রিল সোম ৪:১৯মি. ৬:২২মি.
১০ ১২ এপ্রিল মঙ্গল ৪:১৮মি. ৬:২৩মি.
মাগফিরাতের ১০ দিন
১১ ১৩ এপ্রিল বুধ ৪:১৭মি. ৬:২৩মি.
১২ ১৪ এপ্রিল বৃহস্পতি ৪:১৫মি. ৬:২৩মি.
১৩ ১৫ এপ্রিল শুক্র ৪:১৪মি. ৬:২৪মি.
১৪ ১৬ এপ্রিল শনি ৪:১৩মি. ৬:২৪মি.
১৫ ১৭ এপ্রিল রবি ৪:১২মি. ৬:২৪মি.
১৬ ১৮ এপ্রিল সোম ৪:১১মি. ৬:২৫মি.
১৭ ১৯ এপ্রিল মঙ্গল ৪:১০মি. ৬:২৫মি.
১৮ ২০ এপ্রিল বুধ ৪:০৯মি. ৬:২৬মি.
১৯ ২১ এপ্রিল বৃহস্পতি ৪:০৮মি. ৬:২৬মি.
২০ ২২ এপ্রিল শুক্র ৪:০৭মি. ৬:২৭মি.
নাজাতের ১০ দিন
২১ ২৩ এপ্রিল শনি ৪:০৬মি. ৬:২৭মি.
২২ ২৪ এপ্রিল রবি ৪:০৫মি. ৬:২৮মি.
২৩ ২৫ এপ্রিল সোম ৪:০৫মি. ৬:২৮মি.
২৪ ২৬ এপ্রিল মঙ্গল ৪:০৪মি. ৬:২৯মি.
২৫ ২৭ এপ্রিল বুধ ৪:০৩মি. ৬:২৯মি.
২৬ ২৮ এপ্রিল বৃহস্পতি ৪:০২মি. ৬:২৯মি.
২৭ ২৯ এপ্রিল শুক্র ৪:০১মি. ৬:৩০মি.
২৮ ৩০ এপ্রিল শনি ৪:০০মি. ৬:৩০মি.
২৯ ০১ মে রবি ৩:৫৯মি. ৬:৩১মি.
৩০ ০২ মে ৩:৫৮মি. ৬:৩১মি.

ঢাকার সময়ের সঙ্গে যোগ (+) করতে হবে

সেহরি

জেলা সেহরি
মানিকগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, পঞ্চগড়, নীলফামারী ১ মিনিট
বরিশাল, ভোলা, শরীয়তপুর, ফরিদপুর, মাদারীপুর ২ মিনিট
দিনাজপুর, জয়পুরহাট, ঠাকুরগাও ২ মিনিট
নওগা, ঝালকাটি ৩ মিনিট
 নাটোর, পাবনা, রাজবাড়ি, মাগুরা, পটুয়াখালি, গোপালগঞ্জ ৪ মিনিট
রাজশাহী, কুষ্টিয়া, বরগুনা, নড়াইল, বাগেরহাট, ঝিনাইদহ ৫ মিনিট
খুলনা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, পিরোজপুর, চাপাইনবাবগঞ্জ ৬ মিনিট
মেহেরপুর, সাতক্ষীরা ৭ মিনিট

ইফতার

জেলা ইফতার
ময়মনসিংহ, গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট ১ মিনিট
খুলনা, টাঙ্গাইল, নড়াইল, মানিকগঞ্জ, ফরিদপুর ২ মিনিট
শেরপুর, মাগুরা, জামালপুর ৩ মিনিট
যশোর, সাতক্ষীরা, রাজবাড়ী, সিরাজগঞ্জ ৪ মিনিট
পাবনা, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ ৫ মিনিট
বগুড়া, চুয়াডাঙ্গা, গাইবান্ধা, মেহেরপুর ৬ মিনিট
নাটোর,মেহেরপুর,কুড়িগ্রাম ৭ মিনিট
রাজশাহী, নাটোর, রংপুর, কুড়িগ্রাম, জয়পুরহাট, লালমনিরহাট ৮ মিনিট
নীলফামারী, দিনাজপুর, চাপাইনবাবগঞ্জ ১০ মিনিট
পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও ১২মিনিট

ঢাকার সময় থেকে কমাতে (-) হবে

সেহরি

জেলা সেহরি
রংপুর, গাজীপুর, গাইবান্ধা, নোয়াখালী, কক্সবাজার ১ মিনিট
চট্রগ্রাম, নরসিংদী, জামালপুর ২ মিনিট
কুড়িগ্রাম, শেরপুর, লালমনিরহাট ২ মিনিট
 ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, কিশোরগঞ্জ, ফেনী ৩ মিনিট
 নেত্রকোনা, বি-বাড়িয়া, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ৪ মিনিট
খাগড়াছড়ি, হবিগঞ্জ ৬ মিনিট
সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ৮ মিনিট
সিলেট ৯ মিনিট

ইফতার

জেলা ইফতার
কিশোরগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ, নরসিংদী, শরীয়তপুর, ঝালকাঠি ১ মিনিট
বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, সুনামগঞ্জ, চাদপুর ২ মিনিট
বি-বাড়িয়া, লক্ষীপুর, ভোলা, হবিগঞ্জ ৩ মিনিট
সিলেট, কুমিল্লা, নোয়াখালী, মৌলভীবাজার ৪ মিনিট
ফেনী ৫ মিনিট
চট্রগ্রাম, খাগড়াছড়ি ৮ মিনিট
রাঙামাটি ৯ মিনিট
বান্দারবান, কক্সবাজার ১০ মিনিট

রোজা রাখার নিয়ত

نويت ان اصوم غدا من شهر رمضان المبارك فرضا لك ياالله فتقبل منى انك انت السميع العليم

(নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিং শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আংতাস সামীউল আলীম)

অর্থ: হে আল্লাহ! আগামীকাল পবিত্র রমযান মাসে তোমার পক্ষ হতে ফরয করা রোজা রাখার নিয়ত করলাম, অতএব তুমি আমার পক্ষ হতে কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

রোজার বাংলা নিয়ত

হে আল্লাহ পাক! আপনার সন্তুষ্টির জন্য আগামীকালের রমাদ্বান শরীফ-এর ফরয রোযা রাখার নিয়ত করছি। আমার তরফ থেকে আপনি তা কবুল করুন। নিশ্চয়ই আপনি সর্বশ্রোতা , সর্বজ্ঞাত।

ইফতারের দোয়া

(আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া তাওয়াক্কালতু আ’লা রিজক্বিকা ওয়া আফতারতু বি রাহমাতিকা ইয়া আর্ হামার রা-হিমীন।)
অর্থ: হে আল্লাহ! আমি তোমারই সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেয়া রিযিক্ব দ্বারা ইফতার করছি।

ইফতারের বাংলা দোয়া

হে আল্লাহ তায়ালা আমি আপনার নির্দেশিত মাহে রমাজানের ফরয রোজা শেষে আপনারই নির্দেশিত আইন মেনেই রোজার পরিসমাপ্তি করছি ও রহমতের আশা নিয়ে ইফতার আরম্ভ করছি। তারপর “বিসমিল্লাহি ওয়া’আলা বারাকাতিল্লাহ” বলে ইফতার করা।

Leave a Comment

Your email address will not be published.