জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড ২০২৪

আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে চান? এই পোস্টের মাধ্যমে জেনে নিন কিভাবে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ হারিয়ে গেলে কিংবা সংশোধন করতে আবেদন করলে তা পেতে অনেকটা সময়ের প্রয়োজন। এমন সময় বিভিন্ন কারণে জন্ম নিবন্ধনের দরকার হতে পারে। যেমন- প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষার্থীর স্কুলে জমাদান, ই-পাসপোর্ট করন ইত্যাদি। এমন হলে অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধনের যাচাই কপি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান সাইট- everify.bdris.gov.bd ভিজিট করে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ পূরন করুন। তারপর সার্চ করে জন্ম নিবন্ধন পেলে তা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করবো কিভাবে?

জন্ম নিবন্ধন এর সনদের মূল কপি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করা যায় না। তবেসরকারি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ওয়েবসাইটের everify.bdris.gov.bd – এই লিংকে ভিজিট করে জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনার জন্ম নিবন্ধনটি যদি অনলাইন করে থাকে তাহলে উক্ত লিংকে ভিজিট করে আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট নম্বর নম্বর লিখুন এবং জন্মতারিখ সঠিকভাবে সিলেক্ট করুন। তারপর অনুসন্ধানে ক্লিক করলেই আপনার জন্ম নিবন্ধনের তথ্য দেখতে পাবেন।

সেখান থেকে কম্পিউটারের Ctrl + P ক্লিক করে Print অপশন থেকে জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন PDF কপি ডাউনলোড বা প্রিন্ট করতে পারবেন। অথবা মোবাইল দিয়ে জন্ম নিবন্ধনের কপি ডাউনলোড করতে চাইলে স্ক্রিনশট নিয়ে পরবর্তীতে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করতে কি কি তথ্য লাগে 

অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করার জন্য প্রয়োজন হবে:

  • অনলাইন/ ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন নম্বর (Birth Registration Number);
  • জন্ম নিবন্ধনের তথ্য অনুযায়ী জন্ম তারিখ (Date of Birth)
  • একটি স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার।
  • ইন্টারনেট কানেকশন।

এই তথ্যগুলো জানা থাকলেই bdris.gov.bd ওয়েবসাইট থেকে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে ডাউনলোড করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কিনা যাচাই

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার পূর্বশর্ত হলো‌ আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ টি অনলাইনে থাকতে হবে। ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন হলে তা অনলাইনে থাকে না এবং জন্ম নিবন্ধনের কোন তথ্য পাওয়া যায় না অনলাইনে।

এক্ষেত্রে আপনার জন্ম নিবন্ধনটি যদি ১৭ ডিজিটের হয় তাহলে সহজেই ১৭ ডিজির জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ প্রদান করে অনলাইনের তার তথ্য যাচাই করে নিতে পারবেন। কিন্তু জন্ম নিবন্ধনটি ১৬টি ডিজিটাল হলে প্রথমেই তা ১৭ ডিজিট করে নিতে হবে তারপর নিচের ধাপগুলো অনুযায়ী জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন তথ্য যাচাই করতে পারবেন-

  • জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের জন্য everify.bdris.gov.bd এই লিংকে ভিজিট করুন।
  • তারপর আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট নম্বর লিখুন।
  • জন্ম নিবন্ধন অনুযায়ী আপনার জন্ম তারিখ YYYY-MM-DD এই ফরম্যাটে লিখুন।
  • সর্বশেষ “ক্যাপচা” (গানিতিক সমস্যা) পূরন করে সার্চ করুন।

আপনার দেওয়া তথ্য সঠিক হলে জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইন হলে সরকারি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ওয়েবসাইট bdris.gov.bd থেকে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করতে পারবেন। ডাউনলোড করতে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-

ধাপ-১: নিবন্ধন সাইটে প্রবেশ

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার জন্য – everify.bdris.gov.bd এই লিংকে ভিজিট করুন। এবার আপনার সামনে একটি যাচাই ফরম আসবে।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম
জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম

ধাপ-২: জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন নম্বর

আপনার অনলাইন করার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট নম্বর দিন। ১৬ ডিজিট নম্বর হলে শেষের ৫ সংখ্যার পূর্বে ০ বসিয়ে ১৭ ডিজিট তৈরি করুন।

ধাপ-৩: জন্ম তারিখ প্রদান

জন্ম নিবন্ধনে যে জন্ম তারিখ প্রদান করেছিলেন সে অনুযায়ী এখানে YYYY-MM-DD ফরম্যাটে জন্ম তারিখ পূরণ করুন।

ধাপ-৪: যাচাই করুন

সঠিকভাবে সকল তথ্য প্রদান করার পর হিউমান ভেরিফিকেশনের জন্য ক্যাপচা পূরণ করতে হয়। নিচে আসা গাণিতিক সমস্যা আকারে ক্যাপচা পাশের খালি ঘরে বসিয়ে সার্চ করুন।

ব্যাস, আপনার দেওয়া জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্মতারিখ সঠিক হলে উক্ত জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি
জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি

ধাপ-৫ জন্ম নিবন্ধন প্রিন্ট

যাচাইকৃত তথ্যটি ডাউনলোড করতে কি-বোর্ড থেকে – Ctrl + P চাপুন। তারপর আপনার সামনে Print Preference অপশন আসবে। সেখান থেকে save অপশনে ক্লিক করে করে জন্ম নিবন্ধন এর কপিটি PDF আকারে সেভ করে রাখতে পারবেন।

আপনি চাইলে কোন কম্পিউটার সার্ভিস এর দোকান থেকে প্রিন্টার ব্যবহার করে তা প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। তবে মোবাইল দিয়ে Print Preference অপশন পাওয়া যায় না। তাই জন্ম নিবন্ধন এর যাচাইকৃত পেজটি ডেক্সটপ মুড করে স্ক্রিনশট নিয়ে রাখুন। পরবর্তীতে তা প্রিন্ট করে নিতে পারবেন।

এভাবে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম অনুযায়ী আপনার জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপিটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি ডাউনলোড

অনলাইন থেকে মূল জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করা যায় না। জন্ম নিবন্ধন সনদ যাচাই করে যে নিবন্ধন তথ্য পাওয়া যায় তা ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। উপরোক্ত জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম অনুযায়ী আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্যটি যাচাই করুন।

যতই পরবর্তী পেজটিই জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি। যা ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিলে মূল জন্ম নিবন্ধনের মতোই ব্যবহার করতে পারবেন।

Birth Certificate জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

Birth Certificate ডাউনলোড করার জন্য ভিজিট করুন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ওয়েবসাইটের, https://everify.bdris.gov.bd/ – এই লিংকে। তারপর নিবন্ধন অনুসন্ধানের ওয়েবপেইজে আপনার ১৭ সংখ্যার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ লিখুন। নিচের ক্যাপচার উত্তর দিয়ে Search বাটনে ক্লিক করুন। নিবন্ধন জেনারেলের কার্যালয়ের ওয়েবসাইটে আপনার নিবন্ধনের তথ্য থাকলে, সেই তথ্যগুলো দেখতে পাবেন। তারপর কি-বোর্ড থেকে Ctrl + P একসাথে চেপে জন্ম নিবন্ধন সনদটির PDF Copy ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করতে পারবেন।

হারিয়ে যাওয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

জন্ম নিবন্ধন সনদ হারিয়ে গেলে তা অনলাইন থেকে সাধারণভাবে ডাউনলোড করা যায় না। বরং এটি পুনঃমুদ্রণ করে মূল কপি নিতে হবে। তবে হারানো জন্ম সনদের নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ জানা থাকলে, তার BDRIS সার্ভার কপি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। এই অনলাইন কপিটি মূল কপির মতই ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে তার মূল কপি পুনরায় পেতে, আপনার নিবন্ধনের সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ/ সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর/ পৌরসভা কার্যালয়ে উপস্থিত হতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিকট আপনার নিবন্ধন সনদের তথ্যগুলো দিলে তারা অনলাইন থেকে নিবন্ধন যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন যাচাই

আপনার জন্ম নিবন্ধন এর তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করার পর প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সহ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে জমা দিতে হয়। তারপর যাচাই-বাছাই এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন এর তথ্য সংশোধন করা হয়।

এক্ষেত্রে আপনার জন্ম নিবন্ধনের তথ্য সংশোধিত হয়েছে কিনা তা যাচাই করার প্রয়োজন হয়। অনলাইনে খুব সহজে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের অবস্থা যাচাই করতে পারবেন।

(১) যাচাই সাইটে প্রবেশ

প্রথমেই, জন্ম নিবন্ধন অবস্থা যাচাই লিংকে ভিজিট করুন। এবার আপনার সামনে একটি যাচাই ফরমের ইন্টারফেস আসবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই
জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই

(২) তথ্য পূরন

  1. আপনি কোন ধরনের আবেদন যাচাই করতে চান তা নির্বাচন করুন।
  2. তারপর আবেদন আইডি লিখুন। জন্ম নিবন্ধন এর সংশোধনের জন্য আবেদন করার পর একটি আবেদন আইডি প্রদান করা হয়। সেই আইডি নম্বরটি এখানে লিখুন।
  3. জন্ম নিবন্ধন অনুযায়ী সঠিকভাবে জন্ম তারিখ টি লিখুন।

এবার দেখুন এ ক্লিক করে আপনার জন্ম নিবন্ধনের বর্তমান অবস্থা দেখতে পাবেন। জন্ম নিবন্ধনটি সংশোধিত হয়েছে কিনা কিংবা বর্তমানে কোন অবস্থায় আছে তার তথ্য পরবর্তী পেজে থাকবে। সেই তথ্য দিয়ে আপনি জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে পারবেন।

নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনেকেই নাম দিয়ে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করতে চাই। কিন্তু শুধুমাত্র ইউনিয়ন পরিষদ/ পৌরসভা/ সিটি কর্পোরেশনেই নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধনের তথ্য যাচাই করা সম্ভব।

কোন সাধারণ মানুষ চাইলে নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবে না। কারণ একই নামে সমগ্র দেশ জুড়ে হাজারো মানুষ থাকতে পারে। তাই শুধুমাত্র জন্ম নিবন্ধন এর অনলাইন ১৭ ডিজিট নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়েই তা অনলাইনে যাচাই করা যায়।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য না পাওয়ার কারণ

জন্ম নিবন্ধন এর তথ্য অনুসন্ধান করতে চাইলে অনেক সময় তা অনলাইনে পাওয়া যায় না। মূলত অনলাইনে সরকারি ডাটাবেজে সেই জন্ম নিবন্ধনটি লিপিবদ্ধ করা না হলে তা অনলাইনে পাওয়া যায় না। এর আরো কিছু কারণ হলো-

  • ২০০১ সালের পূর্বে করা জন্ম নিবন্ধন হলে অনলাইনে লিপিবদ্ধ নাও হতে পারে।
  • হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করা না হলে।
  • জন্ম নিবন্ধনের ডিজিট সংখ্যা ১৬ টি হলে।

এক্ষেত্রে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনটি সার্চ করলেও No Result Found লেখা আসে। এমন হলে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করা যায়না। তাই সকল ধরনের নাগরিক সেবা পেতে বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশ অবশ্যই জন্ম নিবন্ধন টি অনলাইন করে নিতে হবে।

পুরাতন জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বর্তমানে প্রায় সকল জন্ম নিবন্ধনই অনলাইন করা। তবে কিছু কিছু জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে লিপিবদ্ধ নেই।

এমন জন্ম নিবন্ধন এর ক্ষেত্রে ডিজিট সংখ্যা থাকে ১৬ টি। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করনের মাধ্যমে ১৭ ডিজিট করা হয়।

হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইন করতে জন্ম নিবন্ধন এর ১৬ ডিজিটের মধ্যে শেষের ৫ ডিজিটের পূর্বে একটি ০ বসিয়ে ১৭ ডিজিট করে জন্ম তারিখ দিয়ে যাচাই করে নিন তা অনলাইনে আছে কিনা। তারপর জন্ম নিবন্ধন অনলাইন জন্য আবেদন করার মাধ্যমে অনলাইন করতে পারবেন।

অথবা আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা কার্যালয়ে গিয়ে পুরাতন হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন দিয়ে তা অনলাইন করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড নিয়ে প্রশ্ন উত্তর (FAQ’s)

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কিনা কিভাবে বুঝবো?

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ওয়েবসাইটের everify.bdris.gov.bd এই লিঙ্কে প্রবেশ করে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কিনা যাচাই করা যায়। আপনার জন্ম নিবন্ধন এর ১৭ ডিসেট নম্বর এবং জন্মতারিখ দিয়ে যাচাই করতে পারবেন এটি অনলাইন কিনা।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে দেখবো?

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন দেখার জন্য everify.bdris.gov.bd এই লিংকে ভিজিট করে আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন দেখতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে কিভাবে বের করবো?

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে যদি জন্ম নিবন্ধনের নাম্বার ও জন্ম তারিখ মনে থাকে তাহলে তা বের করতে পারবেন। এগুলো দিয়ে জন্ম নিবন্ধনের তথ্য অনুসন্ধান করে যাচাই কপি বের করতে পারবেন। অথবা সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে হারিয়ে যাওয়া জন্ম নিবন্ধন রিপ্রিন্ট করতে পারবেন।

কিভাবে জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি ডাউনলোড করা যায়?

everify.bdris.gov.bd এই লিংকে ভিজিট করে আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন দেখতে পারবেন। তারপর Ctrl + P ক্লিক করে Save to PDF থেকে অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন কিভাবে অনলাইন করা যায়?

জন্ম নিবন্ধন নম্বর ১৬ ডিজিটের হলে শেষের ৫ ভিজিটের পূর্বে ০ যুক্ত করে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে তা অনলাইন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন চেক করার ওয়েবসাইট কোনটি?

জন্ম নিবন্ধন চেক করার ওয়েবসাইট হলো- www.bdris.gov.bd । অথবা সরাসরি everify.bdris.gov.bd এই লিংকে প্রবেশ করেও জন্ম নিবন্ধন চেক করতে পারবেন।

সর্বশেষ

উপরোক্ত ভাবে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে পারলেও মূল কপি অনলাইন থেকে সংগ্রহ করা যায় না। তাই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম নিবন্ধনের আসল কপি সংগ্রহ করুন।

এই পোস্টের মাধ্যমে জানতে পারলাম কিভাবে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করা যায়। এ বিষয় সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে বলুন। এরকম উপকারী তথ্য পেতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট, ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top