History

আজকের এই দিনে কি কি ঘটেছিল – ১৪ ডিসেম্বর

আজকের দিনটি-কাল হয়ে যায় অতীত। এই প্রতিটি দিনই এক একটি ইতিহাস। আজ রোববার- ১৪ ডিসেম্বর ২০২০। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের আজকের এই দিনে কি কি ঘটেছিল। কে কে জন্মগ্রহণ ও মৃত্যুবরণ করেছিলেন।

ছুটি ও অন্যান্য
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস (বাংলাদেশ)।

জন্ম
১৫০৩ – নসট্রাদামুস, ফরাসি ভবিষ্যদ্বক্তা, জ্যোতিষী, লেখক এবং ঔষধ প্রস্তুতকারক ও চিকিৎসা সামগ্রী বিক্রেতা।
১৫৪৬ – ড্যানিশ জোত্যির্বিদ ও রসায়নবিদ টাইকো ব্রাহে।
১৬২৬ – জাপানের সম্রাট গো-সুজাকো।
১৮৭৮ – বিদগ্ধ সাহিত্যিক ও ইতিহাসবেত্তা হরিহর শেঠ।
১৯১২ – সঙ্গীতশিল্পী ও সুরকার হেমাঙ্গ বিশ্বাস।
১৯২৪ – রণবীর রাজ কাপুর, বিখ্যাত ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও হিন্দি চলচ্চিত্রের পরিচালক।
১৯৩৪ – শ্যাম বেনেগল, ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক ও চিত্রনাট্যকার।
১৯৪৬ – এন্টোনি বিভোর্‌, ইংরেজ ঐতিহাসিক।
১৯৫৩ – বিজয় অমৃতরাজ, ভারতীয় টেনিস খেলোয়াড়, ক্রীড়া ভাষ্যকার ও অভিনেতা।
১৯৫৪ – মাকসুদুল আলম, বাংলাদেশী জিনতত্ত্ববিদ, পেঁপে, রাবার, পাট এবং ছত্রাক জিনোম উদ্ভাবক
১৯৬৭ – সন্দীপ গোস্বামী, ভারতীয় বাঙালি কবি, সমালোচক।

মৃত্যু
১১৩৬ – নরওয়ের সম্রাট চতুর্থ হেরাল্ড।
১৫৪২ – স্কটল্যান্ডের রাজা পঞ্চম জেমস।
১৭৯৯ – জর্জ ওয়াশিংটন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম রাষ্ট্রপতি।
১৯৩৬ – ইয়োসেফ ব্লক, ছিলেন একজন জার্মান সমাজতান্ত্রিক সাংবাদিক।
১৯৭০ – কুমুদরঞ্জন মল্লিক, বাংলার রবীন্দ্রযুগে স্বনামধন্য পল্লীপ্রেমী কবি ও শিক্ষাবিদ।
১৯৭১ – মহিউদ্দীন জাহাঙ্গীর, বীরশ্রেষ্ঠ, মুক্তিযোদ্ধা।
১৯৭১ বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড
শহীদুল্লাহ কায়সার, লেখক।
মুনীর চৌধুরী, ভাষাবিজ্ঞানী।
মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরী, মননশীল প্রবন্ধকার, বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের গবেষক, শিক্ষাবিদ।
এ এফ এম আবদুল আলীম চৌধুরী – চিকিৎসক।
আবুল খায়ের – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যপক।
ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাবিজ্ঞানের শিক্ষক ও চিকিৎসক।
ড. ফয়জুল মহী – শিক্ষাবিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষক।
গিয়াসউদ্দীন আহমদ – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সিনিয়র অধ্যাপক।
আ ন ম গোলাম মোস্তফা – দৈনিক পূর্বদেশ-এর সাংবাদিক।
আনোয়ার পাশা – কবি, কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ।
ডা. মোহাম্মদ ফজলে রাব্বি – চিকিৎসক ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের প্রফেসর।
সেলিনা পারভীন – সাংবাদিক।
সিরাজুল হক খান – শিক্ষাবিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।
এস. এম. এ. রাশীদুল হাসান – শিক্ষাবিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।
সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক।

১৯৮৪ – ধীর আলী মিয়া, বাংলাদেশী যন্ত্রবাদক, সঙ্গীত পরিচালক, ও সুরকার।
১৯৮৯ – আন্দ্রে শাখারভ, সোভিয়েত ইউনিয়নের পরমাণু বিজ্ঞানী, ভিন্নামতাবলম্বী এবং মানবাধিকার কর্মী।
১৯৯৯ – ভাষা সৈনিক আবদুল লতিফ।
২০১৮ – আমজাদ হোসেন, বাংলাদেশের অভিনেতা, লেখক এবং চলচ্চিত্রকার।

ঘটনাবলী
১১২৪ – থিওবাল্ড বুক্কাপেকাস পোপ নির্বাচিত হন।
১৫৬৮ – রাজকুমারী মেরী স্টুয়ার্ট স্কটল্যান্ডের রাণী হন।
১৫৭৫ – ইস্টভান বাথোরি পোল্যান্ডের রাজা নির্বাচিত হন।
১৬৫৬ – প্রথম কৃত্রিম মুক্তা তৈরি হয়।
১৮০৫ – ফসিল জ্বালানী হিসেবে পাথুরে কয়লার তীব্র তাপ শক্তি উৎপাদনের ক্ষমতার বিষয়টি আবিষ্কৃত হয়।
১৯০১ – বিজ্ঞানী ম্যাক্স প্ল্যাংকের কোয়ান্টাম তত্ত্ব উপস্থাপন।
১৯০৩ – বিমান আবিষ্কারকারী রাইট ভাতৃদ্বয় উত্তর ক্যারোলিনায় প্রথম আকাশযান উড্ডয়নের প্রচেষ্টা নেন।
১৯১১ – নরওয়েজিয়ান অভিযাত্রী রোল্ড আমুন্ডেসন ওলাভ জালান্ড, হেলমার হ্যানসেন, স্ভেরে হ্যাসেল ও অস্কার উইস্টিংকে নিয়ে গড়া তার দল নিয়ে প্রথম দক্ষিণ মেরুতে পা রাখে।
১৯১৫ – জ্যাক জনসন কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে প্রথম হেভিওয়েট মুষ্টিযুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন হন।১৯১৮ – ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে মহিলাদের সর্বপ্রথম ভোটাধিকার প্রয়োগ।

১৯৪৬ – আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা ( আইএলও ) জাতিসংঘের সহায়ক সংস্থা হিসাবে স্বীকৃতি লাভ করে ।
১৯৪৬ – জাতিসংঘের জেনারেল এসেম্বলী নিউ ইয়র্কে সদর দপ্তর স্থাপনের পক্ষে ভোট দেয়।
১৯৪৭ – রুমানিয়া প্রজাতন্ত্রী দেশে পরিণত।
১৯৫৫ – আলবেনিয়া, অস্টৃয়া, বুলগেরীয়া, ক্যাম্বোডিয়া, ফিনল্যান্ড, হাঙ্গেরী, আয়ারল্যা ন্ড, ইতালী, জর্দান, লাওস, লিবিয়া, পর্তুগাল, রোমানিয়া, স্পেন ও শ্রীলংকা জাতিসংঘে যোগ দেয়।
১৯৬০ – সোমালিয়ার সঙ্গে চীনের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হয় ।
১৯৬১ – তাঞ্জানিয়া জাতিসংঘে যোগ দেয়।
১৯৭১ – মুক্তিযুদ্ধের শেষ পর্যায়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের দেশীয় দোসররা বুদ্ধিজীবীদের ধরে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে।

১৯৭১ – মহান মুক্তিযুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয় যখন নিশ্চিত, ঠিক তখন পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকার, আল বদর, আল শামস বাহিনী জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বরেণ্য শিক্ষাবিদ, গবেষক, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, সাংবাদিক, কবি ও সাহিত্যিকদের রাতের আঁধারে চোখ বেঁধে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। মুক্তিযুদ্ধে আলবদর বাহিনী বাংলাদেশের অগণিত বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করে। নিহত ও নিখোঁজ বুদ্ধিজীবীদের মধ্যে রয়েছেন অধ্যাপক ড. গোবিন্দ চন্দ্র দেব, অধ্যাপক ড. মুনির চৌধুরী, অধ্যাপক ড. মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরী, অধ্যাপক ড. আনোয়ার পাশা, অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের, অধ্যাপক ড. জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতা, অধ্যাপক ড. সিরাজুল হক খান, অধ্যাপক ড. এ এন এম ফাইজুল মাহী, হুমায়ূন কবীর, অধ্যাপক রাশিদুল হাসান, সাজিদুল হাসান, ফজলুর রহমান খান, এন এম মনিরুজ্জামান, এ মুকতাদির, শরাফত আলী, এ আর কে খাদেম, অনুদ্বৈপায়ন ভট্টাচার্য, এম এ সাদেক, এম সাদত আলী, সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য, গিয়াসউদ্দিন আহমদ, ডা. এম মর্তুজা, ড. হবিবুর রহমান, ড. সুখারঞ্জন সমাদ্দার, মীর আবদুল কাইউম, অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ ফজলে রাব্বি, অধ্যাপক ডা. আলিম চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. শামসুদ্দীন আহমেদ, অধ্যাপক ডা. আব্দুল আলিম চৌধুরী, ডা. হুমায়ুন কবীর, ডা. আজহারুল হক, ডা. সোলায়মান খান, ডা. আয়েশা বদেরা চৌধুরী, ডা. কসির উদ্দিন তালুকদার, ডা. মনসুর আলী, ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা, ডা. মফিজউদ্দীন খান, ডা. জাহাঙ্গীর, ডা. নুরুল ইমাম, ডা. এস কে লালা, ডা. হেমচন্দ্র বসাক, ডা. ওবায়দুল হক, ডা. আসাদুল হক, ডা. মোসাব্বের আহমেদ, ডা. আজহারুল হক, ডা. মোহাম্মদ শফী, সাংবাদিক শহীদুল্লাহ কায়সার, সাংবাদিক নিজামুদ্দীন আহমেদ, সাংবাদিক সেলিনা পারভীন, সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেন, সাংবাদিক আ ন ম গোলাম মুস্তফা, সাংবাদিক খন্দকার আবু তালেব, সাংবাদিক শহীদ সাবের, সৈয়দ নাজমুল হক, গীতিকার ও সুরকার আলতাফ মাহমুদ, রাজনীতিবিদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত, সমাজসেবক ও দানবীর রণদাপ্রসাদ সাহা, শিক্ষাবিদ ও আয়ূর্বেদিক চিকিৎসক যোগেশ চন্দ্র ঘোষ, লেখক ও চলচ্চিত্রকার জহির রায়হান, কবি মেহেরুন্নেসা, শিক্ষাবিদ ও গণিতজ্ঞ ড. আবুল কালাম আজাদ, আইনজীবী নজমুল হক সরকার, সমাজসেবক ও আয়ূর্বেদিক চিকিৎসক নূতন চন্দ্র সিংহসহ ।
১৯৮১ – ইহুদিবাদী ইসরাইলের সংসদ অধিকৃত গোলান মালভূমিকে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরাইলের ভূখণ্ড বলে ঘোষণা করে

১৯৯৪ – সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে চীনের তখনকার রাষ্ট্রীয় পরিষদের প্রধানমন্ত্রী লি ফেং সারা বিশ্বের কাছে “ইয়াংসি নদীর তিনগিরিখাত প্রকল্পের নির্মাণকাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু ” হবার কথা ঘোষণা করেন।
১৯৯৫ – প্যারিসে বসনীয় শান্তিচুক্তি আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাক্ষরিত হয়।
১৯৯৫ – প্যারিসে এক সম্মেলনে ডেইটন চুক্তি চূড়ান্ত করা হয় এবং একই বছরের ২১ শে নভেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেইটন নামক স্থানে মার্কিন কর্মকর্তাদের চাপের মুখে বসনিয়ার মুসলমান, সার্ব ও ক্রোয়াট নেতৃবৃন্দ এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
১৯৯৬ – বাংলাদেশে ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ বাতিল বিলে প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষর।
১৯৯৯ – কিরিবাতি, নাউরু, টোঙ্গা জাতিসংঘে যোগ দেয়।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button